দুঃখ যেন সফলতার জন্য শক্তি স্বরূপ

দুঃখ যেন সফলতার জন্য শক্তি স্বরূপ

মাহবুবা সুমি

প্রত্যেকটি মানুষের জীবনে দুঃখ আছে। দুঃখ ছাড়া কোনো মানুষ নেই। যত বড় সুখী মানুষই হোক না কেন সে কোনো না কোনো মানুষ থেকে কষ্ট পাবেই। আর কষ্ট বা দুঃখ এটা কি কোনো বস্তুগত জিনিস? আমার মতে এটা অনুভূতি এবং এটা এমনই একটি অনুভূতি যা নিজে থেকে আসে না। আমাদের না বোধক চিন্তাধারা কষ্টটাকে বারবার মনে করে কাঁদে এবং হৃদয়ে স্থান দেয়। তবে অভিভাবকরা সব সময় বাচ্চাদের কষ্ট পেতে দেন না এবং কাঁদতেও দেন না। আমি মনে করি বাচ্চাদের কাঁদতে না দেয়াটা বোকামি। কারণ কষ্ট হল সফলতার হাতিয়ার। যে জিনিসের জন্য সে কাঁদবে বা যে কষ্ট মনে করে কাঁদবে সেই জিনিস পাওয়ার আগ্রহ তাকে কাজের গতি বাড়িয়ে দেবে। এই সূত্রটি ছোট-বড় সবার জন্য প্রযোজ্য এবং সবার জন্য প্রায় সমান। এটা আমার বেলায় বহুবার হয়েছে। রাগ বা অভিমান করলে কাজের গতি এবং সফলতার আকাঙ্ক্ষা বেড়ে যায় এবং সফলতা তখন হাতের কাছে চলে আসে। দুঃখটা আপনার কাছে কষ্টদায়ক হলেও তাকে গ্রহণ করুন এবং অনুভূতিতে নিন এবং কাঁদুন। আপনি কষ্ট পাচ্ছেন কিন্তু কাঁদতে পারছেন না, এটা আপনার শরীর ও মনের ওপর ক্ষতিকর প্রভাব ফেলবে। তাই শব্দ করে কাঁদুন। চোখ থেকে জল ঝরান পারলে হাউমাউ করে কাঁদুন, দেখবেন শরীর ও মন হালকা হয়ে গেছে। তখন কাজে মন বসবে এবং কাজ সহজ হবে। মনোবিজ্ঞানীরা রাসায়নিক প্রমাণ ছাড়াই অনেক আগে থেকেই বিশ্বাস করে আসছেন, কষ্ট যে ধরনেরই হোক না কেন সে সমস্যার সঙ্গে জড়িত সৃষ্ট টেনশনকে বের করে দেয় কান্না। মনোবিজ্ঞানী প্রফেসর ফ্রেডরিক ফ্লেচ বলেন যে, মানসিক চাপ ভারসাম্য নষ্ট করে। আর কান্না ভারসাম্য পুনরুদ্ধার করে। কান্না সেন্ট্রাল নার্ভাস সিস্টেমকে মানসিক চাপ থেকে মুক্তি দেয়। না কাঁদলে সেই মানসিক চাপ শরীরেই থেকে যায়। নগর সভ্যতা আমাদের দুঃখজনিত আবেগ বা কান্না প্রকাশে সর্বদা বাধা দিয়ে এসেছে। তাদের ধারণা হচ্ছে কান্না এক প্রকার অভদ্রতা। আর তাই আমরা শুধু কান্নাকেই চেপে রাখি না, এর সঙ্গে সঙ্গে ভয়, উৎকণ্ঠা ও ক্রোধ সব কিছুকেই চেপে রাখতে চেষ্টা করি। যা আমাদের দেহে টক্সিন বা বিষাক্ত অণু সৃষ্টিতে সহায়তা করে। অথচ কান্না সম্পূর্ণভাবে এক মানবীয় গুণ। কান্না শরীরকে সুস্থ করে অনুভূতি ও মমত্বকে আকর্ষণ করে এবং কান্নার জল মমতা বাড়ায়। যে মমতা মানুষকে মানুষ করেছে। তাই আপনার জীবনের প্রতিটি দুঃখজনক বিষয়ই সফলতার এক একটি পথ।

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s