চার পত্রিকার বিরুদ্ধে ডেসটিনির পাঁচ হাজার কোটি টাকার মানহানি মামলা

কোর্ট রিপোর্টার

ধারাবাহিকভাবে উদ্দেশ্যমূলক সংবাদ প্রকাশ করায় ৪টি পত্রিকার সম্পাদক, প্রকাশক ও প্রতিবেদকের বিরুদ্ধে ৫০০০ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে মানহানির মামলা করেছেন ডেসটিনি গ্রুপের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ রফিকুল আমীন।
গতকাল রোববার ঢাকার ৪র্থ যুগ্ম জেলাজজ আদালতে তিনি এই মামলা দায়ের করেন। এটি এযাবৎকালের সর্বোচ্চ ক্ষতিপূরণ আদায়ের মামলা। মামলায় প্রথম আলো, যুগান্তর, নয়া দিগন্ত ও যায়যায়দিনের সম্পাদক, প্রকাশক ও প্রতিবেদকসহ ১৩ জনকে আসামি করা হয়েছে।
বিচারক মো. আস সামছ জগলুল হোসেন মামলাটি গ্রহণ করে বিবাদীদের আগামী ১০ জুন আদালতে হাজির হওয়ার জন্য সমন জারি করেছেন। ডেসটিনি গ্রুপের আইনজীবী এহসানুল হক সমাজি বাদীপক্ষে আদালতে মামলাটি পরিচালনা করেন। মামলা দায়েরের জন্য আদালতে সর্বোচ্চ ৫০ হাজার টাকার অ্যাডভেলুরেম কোর্ট ফি জমা দেওয়া হয়েছে।
বিবাদীরা হলেন_ দৈনিক নয়া দিগন্তের সম্পাদক মো. আলমগীর মহিউদ্দিন, প্রকাশক মো. সামছুল হুদা, মেসার্স দিগন্ত প্রিন্টার্স ও প্রতিবেদক সামছুজ্জামান নিপু, দৈনিক যুগান্তরের সম্পাদক ও প্রকাশক সালমা ইসলাম, নির্বাহী সম্পাদক মো. সাইফুল আলম, যমুনা প্রিন্টিং এবং পাবলিশিং লিমিটেড ও প্রতিবেদক মো. গোলাম মাওলা, দৈনিক প্রথম আলোর সম্পাদক ও প্রকাশক মো. মতিউর রহমান, ট্রান্সকম লিমিটেড ও প্রতিবেদক মো. ফখরুল ইসলাম, দৈনিক যায়যায়দিনের প্রকাশনা ও সম্পাদনা বোর্ডের প্রেসিডেন্ট সাঈদ হাসান চৌধুরী এবং ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক কাজী রোকনউদ্দিন আহামেদ ও প্রতিবেদক খায়রুল ইসলাম।
বাদী তার ৩৭ পৃষ্ঠার আরজিতে বলেছেন, সাম্প্রতিককালে ডেসটিনির বিরুদ্ধে বিবাদীগণ তাদের পত্রিকায় যেসব সংবাদ পরিবেশন করেছেন সেগুলো অসত্য, ভিত্তিহীন, বাস্তবতাবিবর্জিত, অলীক, মনগড়া, মানহানিকর ও উদ্দেশ্যমূলক। বিবাদীগণ তাদের পত্রিকায় ডেসটিনির বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালানোর কারণে ডেসটিনি গ্রুপের ৩৪ প্রতিষ্ঠান, প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে জড়িত ৪৫ লাখ গ্রাহক আর্থিক ও মানসিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। বিবাদীগণের কারণে বাদীর গ্রুপ অব কোম্পানির ব্যবসায়িকভাবে ২০০০ কোটি টাকা, মানসিকভাবে ১০০০ কোটি টাকা এবং বাদীর নিজস্ব, পারিবারিক ও ব্যবসায়িকভাবে ২০০০ কোটি টাকা ক্ষতি হয়েছে বলে উল্লেখ করা হয়। এছাড়া মামলা দায়ের করার তারিখ থেকে বিবাদীদের কাছ থেকে টাকা আদায়ের দিন পর্যন্ত ৫০০০ কোটি টাকার ওপর ৯ শতাংশ হারে লভ্যাংশ দাবি করা হয়েছে।
বাদী আদালতে তার আরজিতে বলেছেন, নয়া দিগন্ত পত্রিকায় ১-৪ নং বিবাদীরা পরস্পর যোগসাজশে গত ২৭ মার্চ, ২৮ ও ২৯ মার্চ এবং ১ ও ২ এপ্রিল তারিখে, যুগান্তর পত্রিকায় ৫-৮ নং বিবাদীরা ২৯ মার্চ, ৩০ ও ৩১ মার্চ, এবং ১ ও ২ এপ্রিল, প্রথম আলো পত্রিকায় ৯-১১ নং বিবাদীরা ৩১ মার্চ, যায়যায়দিন পত্রিকায় ১২-১৩ নং বিবাদীরা পরস্পর যোগসাজশে ৩১ মার্চ তারিখে বিভিন্ন শিরোনামে ডেসটিনির বিরুদ্ধে সংবাদ পরিবেশন করে দেশের জনগণকে বিভ্রান্ত করেছেন।

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s